fbpx
প্রশ্নোত্তর

প্রশ্ন : জনৈক কলামিস্ট একটি পত্রিকায় লিখেছেন যে, মহানবী (ছাঃ) বলেছেন, ‘তোমরা ধর্মের মূল কাঠামো অক্ষুণ্ণ রেখে তার ব্যবহারিক দিকগুলো অবশ্যই যুগের পরিবর্তনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সংশোধন ও পরিবর্তন করবে’। উক্ত মর্মে সত্যিই কোন হাদীছ আছে কি?

উত্তর : উক্ত মর্মে কোন হাদীছ বর্ণিত হয়নি। তাছাড়া শরী‘আতের কোন স্পষ্ট বিধান পরিবর্তন বা সংশোধন করার কোন সুযোগ নেই। কারণ আল্লাহ বলেন, ‘তোমার প্রতিপালকের কালেমা সত্য ও ন্যায় দ্বারা পূর্ণ। যার পরিবর্তনকারী কেউ নেই’ (আন‘আম ৬/১১৫)। কারণ ইসলামী শরী‘আত পূর্ণাঙ্গ জীবন ব্যবস্থা (মায়েদাহ ৫/৩),

যা সর্বকালের জন্য প্রযোজ্য। তবে মু‘আমালাত বা ব্যবহারিক ক্ষেত্রে মূল বিধান ঠিক রেখে ধরণ, উপলক্ষ্য বা উপকরণের পরিবর্তন হ’তে পারে। যেমন আল্লাহ জিহাদের জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ প্রস্ত্তত রাখতে বলেছেন (আনফাল ৮/৬০)

তৎকালীন যুগে তা ছিল ঘোড়া, তরবারী, তীর-বর্শা ইত্যাদি। আজকের যুগে সেটি পরিবর্তিত হ’তে পারে আধুনিক অস্ত্র সমূহ দ্বারা। সুতরাং যুগের সাথে তাল
মিলানোর নামে আধুনিক যুগে কতিপয় বুদ্ধিজীবী সূদ, জিহাদ, মহিলাদের পর্দা, ইসলামের হুদূদ, পারিবারিক আইন প্রভৃতি শারঈ বিধান সমূহ পরিবর্তনের জন্য যে প্রস্তাব পেশ করে থাকেন তা একান্তই অজ্ঞতাপ্রসূত এবং কুফরীর পর্যায়ভুক্ত।
কোন ঈমানদার মুসলমানদের জন্য এরূপ চিন্তাধারা থেকে বেঁচে থাকা আবশ্যক।

সূত্র: মাসিক আত-তাহরীক।

➥ লিংকটি কপি অথবা প্রিন্ট করে শেয়ার করুন:
পুরোটা দেখুন

Mahmud Hasan

"যে আল্লাহর দিকে দাওয়াত দেয়, সৎকর্ম করে এবং বলে, আমি একজন মুসলিম, তার কথা অপেক্ষা উত্তম কথা আর কার?" আমি একজন তালিবুল ইলম। আমি নিজেকে ভুলের উর্ধ্বে মনে করি না এবং আমিই হক্ব বাকি সবাই বাতিল এমনও ভাবিনা। অতএব, আমার দ্বারা ভুলত্রুটি হলে নাসীহা প্রদানের জন্যে অনুরোধ রইল। ❛❛যখন দেখবেন বাত্বিল আপনার উপর সন্তুষ্ট, তখন বুঝে নিবেন আপনি ক্রমের হক্ব থেকে বক্রপথে ধবিত হচ্ছেন।❞

এই বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য লিখা

Back to top button
Close