fbpx
প্রশ্নোত্তর

প্রশ্ন : কোম্পানীর মালিক আমাকে চুক্তি অনুযায়ী বেতনের চাইতে কম দিত। ফলে আমার কাছে মালিকের যে ক্যাশ থাকত তা থেকে মালিককে না বলে উক্ত টাকা প্রতিমাসে নিয়ে নিতাম। এভাবে আমি পাঁচ বছর চাকুরী শেষে চলে আসি। আমার পক্ষে উক্ত অর্থ ফেরৎ দেয়ার সামর্থ্য নেই। এখন আমার করণীয় কি?

উত্তর : যত টাকা মালিককে না জানিয়ে নেওয়া হয়েছে তা তাকে ফেরত দিতে হবে। অন্যথায়
খেয়ানতের দায়ে আল্লাহর দরবারে অপরাধী সাব্যস্ত হ’তে হবে। আল্লাহ বলেন, ‘তোমরা বাতিল পন্থায় অন্যের মাল ভক্ষণ করো না’ (নিসা ৪/২৯)

যদি ফিরিয়ে দেওয়ার সামর্থ্য না থাকে, তবে মালিকের কাছে নিজের ভুল স্বীকার করে সমঝোতার চেষ্টা করবে। মালিক ক্ষমা করলেই তবে ক্ষমা হ’তে পারে, অন্যথায় নয়। অন্যদিকে মালিকও চুক্তি মোতাবেক বেতন না দিয়ে থাকলে তার অন্যায়ের জন্য এবং অন্যের হক নষ্ট করার জন্য আল্লাহর নিকট অপরাধী সাব্যস্ত হবে। রাসূল (ছাঃ)
বলেন, সাবধান! কারো ওপর যুলুম করবে না। সাবধান! কোন ব্যক্তির মাল অন্য কারো জন্য হালাল নয়, যতক্ষণ না সে তা স্বেচ্ছায় প্রদান করে’। (আহমাদ হা/২০৭১৪; মিশকাত হা/২৯৪৬; ছহীহুল জামে‘ হা/৭৬৬২)

সূত্র: মাসিক আত-তাহরীক।

➥ লিংকটি কপি অথবা প্রিন্ট করে শেয়ার করুন:
পুরোটা দেখুন

Mahmud Hasan

"যে আল্লাহর দিকে দাওয়াত দেয়, সৎকর্ম করে এবং বলে, আমি একজন মুসলিম, তার কথা অপেক্ষা উত্তম কথা আর কার?" আমি একজন তালিবুল ইলম। আমি নিজেকে ভুলের উর্ধ্বে মনে করি না এবং আমিই হক্ব বাকি সবাই বাতিল এমনও ভাবিনা। অতএব, আমার দ্বারা ভুলত্রুটি হলে নাসীহা প্রদানের জন্যে অনুরোধ রইল। ❛❛যখন দেখবেন বাত্বিল আপনার উপর সন্তুষ্ট, তখন বুঝে নিবেন আপনি ক্রমের হক্ব থেকে বক্রপথে ধবিত হচ্ছেন।❞

এই বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য লিখা

Back to top button
Close