fbpx
উত্তরাধিকার ও পরিত্যক্ত সম্পত্তি বণ্টন

প্রশ্ন : আমরা কেবল তিনবোন। ভাই নেই। আমার পিতারা পাঁচ ভাইবোন। আমার পিতা জীবদ্দশায় আমাদের তিন বোনের নামে সমুদয় সম্পদ রেজিস্ট্রি করে দিয়েছেন। আমার এক মামা বলেছেন এটা ঠিক হয়নি। তিনি অন্য ওয়ারিছদের হক বঞ্চিত করেছেন। মসজিদের ইমাম ছাহেব বলেছেন, জীবদ্দশায় পিতা সন্তানদের মধ্যে যেকোন সম্পদ সমানভাবে ভাগ করে দিতে পারেন। এ বিষয়ে সমাধান কি?

উত্তর : যে ব্যক্তির কেবল তিন কন্যা রয়েছে সে সমুদয় সম্পত্তি মেয়েদের নামে লিখে দিতে পারবে না। কারণ একাধিক কন্যা থাকলে তারা সমুদয় সম্পত্তির দুই তৃতীয়াংশ পাবে। আর বাকী সম্পত্তি পিতা-মাতা, স্ত্রী বা ভাই ও তাদের অনুপস্থিতিতে
ভাতিজারা পাবে (নিসা ৪/১১)

দ্বিতীয়তঃ জীবিত অবস্থায় ওয়ারিছদের মাঝে সমুদয় সম্পদ বণ্টন করা জায়েয। তবে কাউকে বঞ্চিত করে বা বঞ্চিত করার উদ্দেশ্যে নয়; বরং কুরআনের বিধান অনুযায়ীই তা বন্টন করতে হবে (মারদাভী, আল-ইনছাফ ৭/১৪২; ফাতাওয়া লাজনা দায়েমাহ ১৬/৪৬৩)

সুতরাং কুরআনের বিধান অনুযায়ী কেবল মেয়েদের নামে সমুদয় সম্পত্তি লিখে দিয়ে পিতা অন্যদের বঞ্চিত করেছেন। অতএব সম্পত্তি পুনরায় সঠিকভাবে শরীকদের মাঝে বণ্টন করতে হবে। নতুবা কুরআনী বিধান লংঘনের দায়ে পিতাকে কবরে শাস্তি ভোগ করতে হবে (নিসা ৪/১৪)

সূত্র: মাসিক আত-তাহরীক।

➥ লিংকটি কপি অথবা প্রিন্ট করে শেয়ার করুন:
পুরোটা দেখুন

Mahmud Ibn Shahid Ullah

"যে আল্লাহর দিকে দাওয়াত দেয়, সৎকর্ম করে এবং বলে, আমি একজন মুসলিম, তার কথা অপেক্ষা উত্তম কথা আর কার?" আমি একজন তালিবুল ইলম। আমি নিজেকে ভুলের উর্ধ্বে মনে করি না এবং আমিই হক্ব বাকি সবাই বাতিল এমনও ভাবিনা। অতএব, আমার দ্বারা ভুলত্রুটি হলে নাসীহা প্রদানের জন্যে অনুরোধ রইল। ❛❛যখন দেখবেন বাত্বিল আপনার উপর সন্তুষ্ট, তখন বুঝে নিবেন আপনি ক্রমের হক্ব থেকে বক্রপথে ধবিত হচ্ছেন।❞

এই বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য লিখা

Back to top button