অমুসলিমদের মাঝে দাওয়াতী কাজ

প্রশ্ন : কোন অমুসলিমকে দান করলে ছওয়াব পাওয়া যাবে কি?

 

উত্তর : ইসলাম ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল সৃষ্টির প্রতি দয়া ও অনুগ্রহের শিক্ষা প্রদান করে। তাই অসহায় অমুসলিমদের দান করলেও ছওয়াব পাওয়া যাবে।

আল্লাহ বলেন, তারা আল্লাহর মহববতে অভাবগ্রস্ত, ইয়াতীম ও বন্দীদের আহার্য প্রদান করে (দাহর ৭৬/০৯)

ইবনু কুদামা বলেন, তখন কেবল কাফেররাই মুসলমানদের হাতে বন্দী ছিল (ইবনু কুদামা, মুগনী ২/৪৯২)

যা প্রমাণ করে যে, তাদের প্রতি দান করার মাধ্যমেও ছওয়াব অর্জিত হয়। তাছাড়া হাদীছে এসেছে, একদিন ছাহাবীগণ জিজ্ঞেস করলেন, হে আল্লাহর রাসূল! প্রাণীর জীবন রক্ষায় ছওয়াব রয়েছে কি? তিনি বললেন, প্রত্যেক তাযা প্রাণ রক্ষায় ছওয়াব
রয়েছে (বুখারী হা/২৩৬৩; মিশকাত হা/১৯০২)

নববী বলেন, ফাসেক ও ইহূদী-নাছারা-মূর্তিপূজক কাফেরকে ছাদাক্বা করাও জায়েয আছে এবং এতে নেকীও রয়েছে (নববী, আল-মাজমূ‘ ৬/২৪০)

অতএব অমুসলিমকে খাওয়ালে বা দান করলেও ছওয়াব পাওয়া যাবে। উল্লেখ্য যে, অমুসলিমরা যাকাতের হকদার নয়। তবে যদি সর্বোচ্চ ধারণা হয় যে, আর্থিক সহযোগিতার মাধ্যমে তাদের অন্তর ইসলামের প্রতি আকৃষ্ট হবে, সেক্ষেত্রে ‘মুআল্লাফাতুল কুলূব’ খাত থেকে তাদেরকে যাকাতের অর্থ প্রদান করা যেতে পারে (ইবুন কুদামা, মুগনী মাসআলা ক্রমিক ৫১০৬, ৬/৪৭৫)

 

সূত্র: মাসিক আত-তাহরীক।

➥ লিংকটি কপি অথবা প্রিন্ট করে শেয়ার করুন:
পুরোটা দেখুন

Mahmud Ibn Shahid Ullah

"যে আল্লাহর দিকে দাওয়াত দেয়, সৎকর্ম করে এবং বলে, আমি একজন মুসলিম, তার কথা অপেক্ষা উত্তম কথা আর কার?" আমি একজন তালিবুল ইলম। আমি নিজেকে ভুলের উর্ধ্বে মনে করি না এবং আমিই হক্ব বাকি সবাই বাতিল এমনও ভাবিনা। অতএব, আমার দ্বারা ভুলত্রুটি হলে নাসীহা প্রদানের জন্যে অনুরোধ রইল। ❛❛যখন দেখবেন বাত্বিল আপনার উপর সন্তুষ্ট, তখন বুঝে নিবেন আপনি ক্রমের হক্ব থেকে বক্রপথে ধবিত হচ্ছেন।❞

এই বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য লিখা

এছাড়াও পড়ে দেখুন
Close
Back to top button