পবিত্রতা

প্রশ্ন: শীতের কারণে কাপড় অথবা চামড়ার মোজা ব্যবহার করা হয়। মোজার উপর কিভাবে কয়দিন যাবত মাসাহ করতে হবে? অনেকে বলেন, চামড়ার মোজা ছাড়া মাসাহ করা যাবে না’। উক্ত দাবী কি সঠিক?

উত্তর : নিয়ম হচ্ছে- ওযূ করে মোজা পরতে হবে। অতঃপর নতুন ওযূর সময় মোজার উপরিভাগে হাতের ভিজা আঙ্গুল দ্বারা পায়ের উপরের পাতা হতে টাখনু পর্যন্ত টেনে এনে একবার মাসাহ করবে (ছহীহ মুসলিম, হা/২৭৪; মিশকাত, হা/৫১৮)। মুক্বীম বা বাড়ীতে অবস্থান করা অবস্থায় ১ দিন ১ রাত ও মুসাফির তথা সফরে থাকা অবস্থায় ৩ দিন ৩ রাত একটানা মোজার উপরে মাসাহ করা যাবে।

শুরাইহ ইবনু হানী (রাহিমাহুল্লাহ) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, ‘আমি আলী ইবনু আবী ত্বালেব (রাযিয়াল্লাহু আনহু)-কে মোযার উপর মাসাহ করা সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলাম। তিনি বললেন, রাসূলুল্লাহ (ছাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) মুসাফিরের জন্য তিনদিন তিনরাত এবং মুকীমের জন্য একদিন একরাত নির্ধারণ করে দিয়েছেন (ছহীহ মুসলিম, হা/২৭৬; মিশকাত, হা/৫১৭, ৫২০)।

যারা বলে চামড়ার মোজা ছাড়া মাসাহ করা যাবে না; উক্ত ধারণা সঠিক নয়। বরং যেকোন পবিত্র মোজার উপর মাসাহ করা যাবে। মুগীরা ইবনু শু‘বা (রাযিয়াল্লাহু আনহু) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, أَنَّ رَسُوْلَ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ تَوَضَّأَ وَمَسَحَ عَلَى الْجَوْرَبَيْنِ وَالنَّعْلَيْنِ ‘রাসূলুল্লাহ (ছাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) ওযূর সময় উভয় মোজা ও জুতার উপর মাসাহ করেছেন’ (আবূ দাঊদ, হা/১৫৯; সনদ ছহীহ, মিশকাত, হা/৫২৩)। হাদীছে কোন নির্দিষ্ট মোজার শর্তারোপ করা হয়নি (ইবনু তায়মিয়াহ, মাজমূউ ফাতাওয়া, ১ম খণ্ড, পৃ. ২৬২; আলবানী, আছ-ছামারুল মুস্তাত্বাব, পৃ. ১৪-১৫)।

 

সূত্র: মাসিক আল-ইখলাছ।

➥ লিংকটি কপি অথবা প্রিন্ট করে শেয়ার করুন:
পুরোটা দেখুন

এই বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য লিখা

Back to top button