সালাত / নামায

প্রশ্ন : মসজিদে উচ্চৈঃস্বরে কথা বলা যাবে কি?

উত্তর : মসজিদ ছালাতের স্থান। এখানে কণ্ঠ উঁচু করে কথা বলা চলে না। এতে মসজিদের মর্যাদা ক্ষুণ হয়। বিশেষ করে জামা‘আত শুরুর আগে যে মসজিদ বাজারে পরিণত হয়, তা থেকে রাসূল (ছাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) কঠোর ভাষায় নিষেধ করেছেন وَإِيَّاكُمْ وَهَيْشَاتِ الأَسْوَاقِ (ছহীহ মুসলিম, হা/৪৩২; আবূ দাঊদ, হা/৬৭৫; মিশকাত, হা/১০৮৯)।

জনৈক ব্যক্তি জোরে কথা বললে রাসূল (ছাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) রেগে বাড়ী থেকে বেরিয়ে তাকে এসে ধমক দেন (ছহীহ বুখারী, হা/৪৭১, ১/৬৮ পৃ.)।

‘উমার (রাযিয়াল্লাহু আনহু) এজন্য দুই ব্যক্তিকে শাসিয়ে দেন لَوْ كُنْتُمَا مِنْ أَهْلِ الْبَلَدِ لأَوْجَعْتُكُمَا تَرْفَعَانِ أَصْوَاتَكُمَا فِىْ مَسْجِدِ رَسُوْلِ اللهِ صلى الله عليه وسلم ‘তোমরা যদি এই মদীনা শহরের বাসিন্দা হতে, তবে মসজিদে উচ্চৈঃস্বরে কথা বলার কারণে আমি দু’জনকেই কঠোর শাস্তি দিতাম’ (ছহীহ বুখারী, হা/৪৭০, ১/৬৭ পৃ.; মিশকাত, হা/৭৪৪; বঙ্গানুবাদ মিশকাত, হা/৬৮৮, ২/২৩০ পৃ., ‘মসজিদ সমূহ’ অনুচ্ছেদ)।

 

সূত্র: মাসিক আল-ইখলাছ।

➥ লিংকটি কপি অথবা প্রিন্ট করে শেয়ার করুন:
পুরোটা দেখুন

Mahmud Ibn Shahid Ullah

"যে আল্লাহর দিকে দাওয়াত দেয়, সৎকর্ম করে এবং বলে, আমি একজন মুসলিম, তার কথা অপেক্ষা উত্তম কথা আর কার?" আমি একজন তালিবুল ইলম। আমি নিজেকে ভুলের উর্ধ্বে মনে করি না এবং আমিই হক্ব বাকি সবাই বাতিল এমনও ভাবিনা। অতএব, আমার দ্বারা ভুলত্রুটি হলে নাসীহা প্রদানের জন্যে অনুরোধ রইল। ❛❛যখন দেখবেন বাত্বিল আপনার উপর সন্তুষ্ট, তখন বুঝে নিবেন আপনি ক্রমের হক্ব থেকে বক্রপথে ধবিত হচ্ছেন।❞

এই বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য লিখা

Back to top button