শিরক ও বিদ’আত

মূল্যবান ধন-সম্পদ ওলিদের কবরের কাছে আমানত রাখা এই বিশ্বাসে যে, ওলিরা এগুলোর হেফাযত করবেন

প্রশ্ন: কিছু কিছু মানুষ তাদের ধন-সম্পদ, সহায়-সম্পত্তি নেককার ব্যক্তিদের কবরের কাছে আমানত রাখে। তাদের বিশ্বাস হচ্ছে- এই নেককার ব্যক্তিগণ তাদের সম্পদগুলো পাহারা দিবে। ফলে তাদের ধন-সম্পদ চুরি হবে না, ছিনতাই হবে না এবং কেউ আত্মসাৎ করতে পারবে না।

উত্তরঃ সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর জন্য।

মৃতব্যক্তিদের কবরের উপরে যে সম্পদগুলো আমানত রাখা হয় তারা এই সম্পদগুলোর রক্ষণাবেক্ষণ করেন এ ধরনের বিশ্বাস সুস্পষ্ট কুফরি ও আল্লাহর রুবুবিয়্যাতের মধ্যে শিরক (অংশীদার) স্থাপন। এই বিশ্বাস নিয়ে যে ব্যক্তি মারা যাবে তার পরিণতি চিরস্থায়ী জাহান্নাম।

এই বিশ্বাস ছাড়া নিছক রক্ষণাবেক্ষণের জন্য অথবা বরকতের জন্য কবরের উপর ধন-সম্পদ রাখাও নাজায়েয। আল্লাহই ভাল জানেন। আল্লাহই উত্তম তাওফিকদাতা। আমাদের নবী মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, তাঁর পরিবার-পরিজন ও সঙ্গি-সাথীদের উপর আল্লাহর রহমত ও শান্তি বর্ষিত হোক।

সূত্র: স্থায়ী কমিটির ফতোয়া সংকলন, খণ্ড-৩, পৃষ্ঠা-৬৮, ইসলাম জিজ্ঞাসা ও জবাব

➥ লিংকটি কপি অথবা প্রিন্ট করে শেয়ার করুন:
পুরোটা দেখুন

আবু রায়হান

আসসালামুআলাইকুম, আমি একজন প্রাথমিক পর্যায়ের ছাত্র। আমি এটা মনে করিনা যে, আমার টাই সঠিক আর বাকি সবারটা ভুল। আমি এই পথে হাটছি, আমি আপনার কাছে দো'আ প্রার্থী, আল্লাহ তাআলা যেন আমাকে অনেক দূর অগ্রসর হওয়ার ও বড় আলেম হয়ে ইসলামের খেদমত করার তাওফিক দান করেন এবং সঠিকটা বুঝে সেই অনুযায়ী আমল করার তাওফিক দান করেন। আর আমার ভুল ভ্রান্তিগুলো ধরিয়ে দিবেন।

এই বিষয়ের সাথে সম্পর্কিত অন্যান্য লিখা

এছাড়াও পড়ে দেখুন
Close
Back to top button